১৯শে ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং, বুধবার

সৌদি আরবে সিনেমা হলে নামাজের জন্য আলাদা ব্যবস্থা রয়েছে ……।

আপডেট: জুলাই ২৯, ২০১৮

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

সৌদি আরবে আবারও চালু হয়েছে সিনেমা হল। হলিউডের ব্ল্যাক প্যান্থার ছবিটি দিয়ে ২১ এপ্রিল সৌদি আরবে রিয়াদ শহরে সিনেমা হলের যাত্রা শুরু হলো,সেখানে দেখা গেল সৌদি দর্শকের উপচে পড়া ভিড়।সৌদি আরবে সিনেমা হল চালু হওয়ার বিষয়টি আলোচিত সারা বিশ্বেই। দেশটি নতুন এক সাংস্কৃতিক যুগের পথে যাত্রা শুরু করেছে সিনেমা হল চালুর মধ্য দিয়ে এমনটাই ভাবছেন বিশ্ব সংস্কৃতিকর্মীরা, তবে এমন পরিস্থিতিতে অনেকেই ধর্মীয় রীতিনীতি পালনের সঙ্গে সৌদিতে সিনেমাকে সাংঘর্ষিক বলেও সমালোচনা ও করছেন।তাদের এ ধারণা বদলে দিতে বেশকিছু পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে প্রেক্ষাগৃহের মালিকগণ। হলিউড রিপোর্টারের এক সংবাদে জানা যাচ্ছে,সৌদি আরবে সিনেমা চলাকালীন নামাজ এর সময় হলে দর্শক নামাজ পরতে পারবে,।তাদের জন্য আলাদা নামাজ কক্ষের ব্যবস্থা থাকবে ছিনেমা হলে।এখন থেকে নতুন যেসব ছিনেমা হল নির্মাণ করা হবে, তার প্রতিটিতে অবশ্যই নামাজের জন্য নির্ধারিত কক্ষ তৈরি করা হবে।

প্রসঙ্গত, সৌদি আরবের নাগরিকরা সর্বশেষ ১৯৭০ সালে সিনেমা দেখেছিলেন। তখন দেশটির কট্টরপন্থী ধর্মীয় নেতাদের চাপে সিনেমা হলগুলো বন্ধ করে দেয়া হয়েছিল। সৌদির নতুন রাজপুত্র আবার সেই নিষেধাজ্ঞা তুলে দিয়ে সৌদি আরবের নাগরিকদের জন্য সিনেমা হলে সিনেমা দেখার সুযোগ করেন।সৌদি আরবের প্রধান আর্থিক তহবিল পাবলিক ইনভেস্টমেন্ট ফান্ড চলচ্চিত্র প্রদর্শনের জন্য বিশ্বের সবচেয়ে বড় সিনেমা হল চেইন আমেরিকান মুভি ক্ল্যাসিক বা এ এম সির সঙ্গে চুক্তি সই করেছে।
চুক্তি অনুযায়ী, আগামী পাঁচ বছরে ১৫টি শহরে ৪০টি সিনেমা হল নির্মাণ করবে এ এম সি। এর পরের সাত বছরে ২৫টি শহরে ৫০ থেকে ১০০টি সিনেমা হল তৈরি করা হবে।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
Address: Phone: Mail
%d bloggers like this: