সানি লিওন নিজের বায়োপিক দেখে নিজেরই মন খারাপ

দ্য আনটোল্ড স্টোরি অফ সানি লিওন সম্প্রকি মুক্তি পেয়েছে। ট্রেলার প্রকাশ হওয়ার পর সানি লিওন এর বায়োপিক নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া ছিল দর্শকদের মাঝে।কেউ বলেছেন, সত্যিটা সামনে এসেছে। আবার কারও মনে হয়েছে, সানির জীবনের অনেক ঘটনাই নাকি দেখানো হয়নি। কিন্তু নিজের বায়োপিক দেখে নাকি মন খারাপ হয়ে গিয়েছে স্বয়ং সানি লিওনির।কিন্তু সানি লিওন জানেন মন খারাপ কেন?২০০৮ সালে সানি লিওন তার মাকে হারান। ক্যান্সারে দীর্ঘ দিন অসুস্থ থাকার পর ২০১০ সালে মারা যান সানি লিওন এর বাবা। বায়োপিকে সে দৃশ্যগুলো দেখেই মন খারাপ হয়েছে সানি লিওনের।

ভারতীয় গণমাধ্যম মিড ডে-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে সানি লিওনি বলেন,যারা অভিনয় করেছেন তারা আমার আসল বাবা-মা নন।কিন্তু অনস্ক্রিন বাবাকে ক্যানসারে ভুগতে দেখা বা অনস্ক্রিন মাকে কফিনে শুয়ে থাকতে দেখাটা মেনে নেওয়া সহজ নয়। বাবা-মা চলে যাওয়ার পর ভেবেছিলাম সত্যিটা মেনে নিতে পারব। কিন্তু সত্যিটা বোধহয় এখনও মানতে পারি না।

এক সময় পর্ণ তারকা ছিলেন সানি লিওন। কিন্তু সেই পেশা ছেড়ে বলিউডে পাড়ি জমিয়েছেন সানি লিওন। ধীরে ধীরে নিজের পায়ের তলায় মাটি শক্ত করেছেন সানি লিওন। এখন ইন্ডাস্ট্রি সবাই সানি লিওনকে এক নামে চেনেন।সানি লিওনর এই জার্নির গল্পই দেখানো হয়েছে ওয়েব সিরিজে,একেবারে পাশের বাড়ির মেয়ের ইমেজ থেকে কেন তিনি পর্নোগ্রাফিকে পেশা হিসেবে বেছে নিয়েছিলেন?কানাডাবাসী মধ্যবিত্ত এক শিখ পরিবারের মেয়ে কী ভাবে অ্যাডাল্ট ইন্ডাস্ট্রিতে জনপ্রিয়তা তৈরি করেছিলেন? কী ভাবে তা থেকে বেরিয়ে বলিউড মূলধারায় জায়গা করে নিলেন? এ সব নিয়ে তৈরি হয়েছে করণজিৎ কউর: দ্য আনটোল্ড স্টোরি অফ সানি লিওন সম্প্রকি মুক্তি পেয়েছে।

Facebook Comments
(Visited 114 times, 2 visits today)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*